সারেগামাপা থেকে পরিচিতি পাওয়া ও বিভিন্ন ইস্যুতে বিতর্কিত হওয়া গায়ক নোবেলকে ডিভোর্সের চিঠি পাঠানোর পর তার স্ত্রী মেহরুবা সালসাবিল মাহমুদ জানিয়েছিলেন, ‘নোবেল মা;নসিক;ভাবে অ;সুস্থ, মা’দ;কাস’ক্ত, আমা;কে নানাভাবে নি’র্যা’তন করত। ওর সঙ্গে সংসার করা সম্ভব না।’

তবে এর কয়েকদিন বাদেই আজ একটি জাতীয় দৈনিককে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সালসাবিল জানালেন ভিন্ন কথা। তিনি বলেন, ‘নোবেলের সাথে দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে। নোবেল ক্ষমা চেয়েছে।

নিজেকে সং’শো’ধনের জন্য দু’মাস সময় চেয়েছে। এই সময়ের মধ্যে নোবেল সং’শো’ধন হলে একসাথে আবার সংসার হবে। কিন্তু এর মধ্যে নিজেকে শো’ধরাতে না পারলে ডিভো’র্স কা’র্যকর হয়ে যাবে।’

তবে যে শুক্রবার রাতে ‘পাত্রীচাই’ বলে পোস্ট দিয়েছিলেন মাঈনুল আহসান নোবেল। এমন প্রশ্নের উত্তরে সালসাবিল বলেন, ‘এটা আমাতের দেখা হওয়ার আগে। এখন ওইসব পোস্ট স’রিয়ে নিয়েছে নোবেল।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা নিজেদের মধ্যে কথা না বলে অনলাইনে কাদা ছোড়াছুড়ি করছিলাম। এটা আসলে ঠিক হয়নি।’

এর আগে, গত সোমবার নোবেল ফেসবুকে জানান, ‌‌‘আমার এবং আমার স্ত্রীর মধ্যকার সকল বিবাদ পারিবারিকভাবে মীমাংসা করা হচ্ছে।

বিগত কিছুদিনের কাদা ছো’ড়াছু’ড়ির জন্য বিনীতভাবে দুঃখিত। বিয়ে একটা পবিত্র প্রথা, অনুগ্রহ করে বে’ফাঁ’স ম’ন্তব্য করে এর পবিত্রতা নষ্ট করবেন না।’