সংযুক্ত আরব আমিরাত ইসরাইলের সাথে ভিসামুক্ত চুক্তি স্থগিত করেছে

উপসাগরীয় দেশ ইসরাইলের সাথে ভিসামুক্ত চুক্তি স্থ’গিত করেছে আরেক দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত।

কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে এ ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

১৮ জানুয়ারি সোমবার ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ কথা জানিয়েছে।

-খবর আনাদলু এজেন্সি, ব্লুমবার্গ, হিন্দিস্থান টাইমস

ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, আগামী ১ জুলাই পর্যন্ত এই স্থ;গিতাদেশ বহাল থাকবে।

ঐ বিবৃতিতে বলা হয়, আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে কো;ভিড-১৯ এর বিস্তার ঠে;কাতে ইসরাইলের সাথে ভিসামুক্ত চুক্তি আগামী ১ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত থাকবে।

‘স্থগিত হওয়া তারিখের আগ পর্যন্ত ইসরাইলি নাগরিকরা ভ্রমণের জন্য আগের মতো এন্টি ভিসা নিতে পারবেন। পাশাপাশি আরব আমিরাতের নাগরিকদের জন্যও এটি প্রযোজ্য হবে। ’

গত কয়েক সপ্তাহে হাজার হাজার ইসরাইলিরা আরব আমিরাত ভ্রমণ করেছে। ইসরাইল ও সংযুক্ত আরব আমিরাত উভয়েই পারস্পরিক সম্মতিতে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের অংশ হিসেবে দুই দেশের নাগরিকদের জন্য ভিসামুক্ত সুবিধা দিয়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত একমাত্র মুসলিম দেশ হিসেবে ভিসা মওকুফের চুক্তি করে ইসরাইলের সঙ্গে।

এর আগে গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর ট্রাম্প প্রশাসনের মধ্যস্থতায় ইসরাইল ও আমিরাতের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। পরবর্তীতে বাহরাইন, সুদান ও সম্প্রতি সময়ে মরক্কো একই পথ অনুসরণ করে।

তবে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের চুক্তিটি প্রথম থেকেই প্রত্যাখ্যান করে আসছে ফিলিস্তিনিরা।

তারা বলছে, ফিলিস্তিনিদের অধিকারকে উপেক্ষা করেই এ চুক্তি করা হয়েছে।