সৌদি এবার করোনার টিকা কিনছে ভারত থেকে

এক সপ্তাহের মধ্যে ভারতের ভ্যাকসিনের ৩০ লাখ ডোজ গ্রহণ করবে উপসাগরীয় দেশ সৌদি আরব। গতকাল সোমবার সেরামের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আদর পুনাওয়ালা বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে এই তথ্য জানিয়েছেন বলে টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরব ভারতের টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইন্সটিটিউটের কাছ থেকে প্রতি ডোজ টিকা ৫ দশমিক ২৫ ডলারে কিনছে সেরামের কাছ থেকে। অ্যাস্ট্রাজেনেকার হয়ে সেরাম এই টিকা বিক্রি করছে।

সৌদি আরবের কাছে বিক্রি করলেও ইউরোপে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন রপ্তানির আপাতত কোনো পরিকল্পনা নেই সেরামে। যদিও বেলজিয়ামে উৎপাদন ঘাটতির কারণে ইইউতে ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে চাপে রয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা উৎপাদনকারী সংস্থা ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউট। দরিদ্র দেশগুলোতে ১০০ কোটি টিকা সরবরাহের জন্য গেটস ফাউন্ডেশন, অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও গ্যাভি ভ্যাকসিনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সেরাম। ভারতীয় এই সংস্থা ব্রিটিশ-সুইডিশ প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকার পক্ষ থেকে টিকা সরবরাহ করবে।

সেরাম প্রধান আদর পুনাওয়ালা রয়টার্সকে বলেন, ‘যেখানে সমর্থন দরকার সেখানে অ্যাস্ট্রাজেনেকাকে আমরা সমর্থন দিচ্ছি। আমরা এটি করতে পেরে খুশি।’

তিনি আরও বলেন, ‘টিকা সরবরাহের সময়ের মধ্যেই আমরা আমাদের উৎপাদন পরিপূর্ণ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কয়েকটি দেশে আমরা টিকা সরবরাহ করতে সক্ষম হয়েছি।’

পুনাওয়ালা জানান, সৌদি আরবের জন্য নির্ধারিত ডোজগুলো এক সপ্তাহ বা দশ দিনের মধ্যে পাঠানো হবে। এই একই দামে (৫.২৫ ডলার) ১৫ লাখ টিকা অ্যাস্ট্রাজেনেকার পক্ষ থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায়ও সরবরাহ করা হচ্ছে।

এদিকে অ্যাস্ট্রাজেনেকা জানিয়েছে, মহামারির সময়ে তারা টিকা থেকে লাভ করবে না। এর আগে ডোজপ্রতি ৫ ডলার করে ২০ লাখ ডোজ টিকা ব্রাজিলকে সরবরাহ করেছে সেরাম।

সেরাম প্রধান আদর পুনাওয়ালা বলেন, ‘মার্চ থেকেই অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার উৎপাদন ৩০ শতাংশ বাড়িয়ে দেবে সেরাম। বর্তমানে দিনে ২৪ লাখ ডোজ টিকা উৎপাদন করছে প্রতিষ্ঠানটি।