মাত্র ১ শত ২০ টাকা খরচে বাংলাদেশ পুলিশে চাকরি পেয়েছেন দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর গ্রামের কৃষক শ্যামল চন্দ্র রায়ের কন্যা বৃষ্টি রানি রায়।

পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি পেতে ব্যাংক ড্রাফট করতে ১০০ এবং কাগজপত্র ফটোকপি করতে খরচ হয়েছে ১৫-২০, সবমিলিয়ে ১২০ টাকার মতো।

বাকি যা হয়েছে সবই মেধার ভিত্তিতে।

এই চাকরিতে নিয়োগ হওয়ার পর জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন।

পাশাপাশি নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ব্যয় হওয়া ১২০ টাকাও তাকে ফেরত দিয়েছেন।

পুলিশ সুপারের ফেরত দেওয়া সেই ১২০ টাকা বাঁধাই করে আজীবন সংরক্ষণ করে রাখতে চান বৃষ্টি রানি।

শুধু তিনি নন, একই টাকা খরচ করে দিনাজপুরের মোট ৬২ জন পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি পেয়েছেন।

শনিবার দুপুরে দিনাজপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে কথা হলে বৃষ্টি রানি বলেন, ‘এভাবে চাকরি পাবো কখনও ভাবিনি।

মনে করেছিলাম, চাকরি পেতে হলে টাকা (ঘুষ) দিতে হয়।

আর আমার পরিবারের পক্ষে টাকা দেওয়াও সম্ভব না।

কিন্তু বাবার ইচ্ছে ছিল, যাতে অংশগ্রহণ করি। অবশেষে আমি চাকরি পেয়েছি।

আমি পুলিশ সুপারের দেওয়া ১২০ টাকাও পেলাম।

এই টাকা সংরক্ষণ করে রাখবো, যাতে করে আমি সারাজীবন মনে রাখতে পারি।

পাশাপাশি বিনা টাকায় চাকরি পাওয়ার এই উদাহরণ সবাইকে দেখাতে পারি।’